দিঘলিয়া উপজেলায় তিনজনকে আ’লীগ থেকে বহিস্কার।

খবর বিজ্ঞপ্তি, ডেইলি সুন্দরবনঃ খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার সেনহাটী ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী গাজী জিয়াউর রহমান ওরফে জিয়া গাজীকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

গত ২১ মার্চ চন্দনীমহল সাংগঠনিক ইউনিয়নের এক বিশেষ বর্ধিত সভায় সর্বসম্মতিক্রমে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। দিঘলিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খান নজরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মোলা আকরাম হোসেন এবং উক্ত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি গাজী আজগর আলী ও সাধারণ সম্পাদক শেখ ইখতিয়ার হোসেন স্বাক্ষরিত প্যাডে বহিষ্কারের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। বহিস্কৃত জিয়া গাজী সাংগঠনিক ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ল্ড আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির সদস্য ছিলেন।

একই সাথে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে উক্ত সাংগঠনিক ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মল্লিক বিল্লাল হোসেন ও সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মাহমুদুল হাসানকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়।

উক্ত প্যাডে লিখিত ভাবে উল্লেখ করা হয়, খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হারুনুর রশীদ ও সাধারণ সম্পাদক এ্যাডঃ সুজিত অধিকারী ২০ মার্চ এক নির্দেশনায় জানান আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর বিরুদ্ধে অবস্থান গ্রহণ বা সংগঠন বিরোধী কার্যক্রম গ্রহণ করলে তাহার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ প্রদান করেন। সে মোতাবেক চন্দনীমহল সাংগঠনিক ইউনিয়ন উপরোক্ত তিনজনের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণপূর্বক তাদেরকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

এদিকে আওয়ামী লীগের ওয়ার্ল্ড কমিটি থেকে জিয়া গাজীকে বহিস্কার করা হলেও তিনি এখনও উপজেলা যুবলীগের কার্যকরী কমিটির সদস্য পদে বহাল রয়েছেন। উপজেলা যুবলীগ এখনো তার বিরুদ্ধে কোনো সাংগঠনিক অবস্থা গ্রহণ করেনি।

এ ব্যাপারে মুঠোফোন কথা হয় উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শেখ মনিরুল ইসলামের সাথে তিনি এ প্রতিবেদককে বলেন, গাজী জিয়াউর রহমান ওরফে জিয়া গাজী উপজেলা যুবলীগের কার্যকরী কমিটির সদস্য হলেও তিনি কখনো যুবলীগের কোন মিটিং এ উপস্থিত হন নাই।

এ ব্যাপারে মুঠোফোনে কথা হয় দল থেকে বহিষ্কৃত বিদ্রোহী প্রার্থী গাজী জিয়াউর রহমান ওরফে জিয়া গাজীর সঙ্গে। তিনি এ প্রতিবেদককে বলেন, দলের এই ধরনের সিদ্ধান্ত এখনো পর্যন্ত আমাকে জানানো হয় নাই। বিষয়টি সম্পর্কে আমি অবগত নয় ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *